১৭ আগস্ট ২০১৯

...
...


একাত্তরের অবাঙালি বিহারিদের দ্বারাই গঠিত হয় আল-শামস্ বাহিনী

লেখক: একাত্তর ডেস্ক

তারিখ: ১৫ ডিসেম্বর ২০১৬



আল শামস বাহিনীটি ছিলো পুরোপুরি বিহারী ও ঢাকার উর্দূভাষী সমন্বিত। বাংলাদেশের প্রেক্ষাপটে বিহারিরা অত্যন্ত খারাপ জাতি, তারা এদেশে বসবাস ও জীবিকা নির্বাহ করলেও লোভী হিংস্র ছিল। বাঙালি হিন্দুদের সম্পদ গ্রাসে তৎপর ছিলো। রেলে এরা চাকরি পায় বেশীরভাগ।

১৯৫০সালে দাঙ্গার সূত্রপাত ঘটায় তারা। বাঙালিদের সাথে স্কুলে সহপাঠী বিহারিরা বেশ খারাপ অঅচরণ করতো। প্রতি বছর এরা সংখ্যায় বাড়তো। পালে পালে আসতো। ঢাকার মিরপুর, মোহাম্মদপুর, আজিমপুর, লালবাগ,পুরনো ঢাকাজুড়ে এরা। প্রায়শই বাঙালিদের সাথে দাঙ্গা হতো। এদের বড় অংশ আবার শিয়া। ফলে বাঙালি সুন্নিদেরে সাথে বিরোধ বাঁধতো। বঙ্গবন্ধু বহুবার দাঙ্গা ঠেকিয়েছেন বিহারিদের।

১৯৭০সারে এরা জামাত ও আইয়ুব খানের মুসলিম লীগকে ভোট দেয়, নৌকার বিরোধিতা করে। ১৯৭১ সালে পাকি হানাদারের সহযোগী হিসেবে এরা ২৬মার্চ শুক্রবার জুমার নামাজের পর থেকেই বাঙালি নিধনে নামে। মোহাম্মদপুরে সাদী মোহাম্মদের পিতাকে নামাজ শেষে ধাওয়া কররে হত্যা করে কুপিয়ে। এই বিহারিরা আল-শামস্ বাহিনী গঠন করে। তারা বাড়ি বাড়ি ঢুকে বাঙালিদের হত্যা করেছে। এই বাহিনীর তৎপরতার তেমন অনুসন্ধান হয়নি এখনো, তবে একাত্তরের পাঠকদের জন্য শীঘ্রই বিস্তারিত আসছে...।

আলোকচিত্র

বিবাহিদের সহযোগিতায় বাঙালি নির্যাতন

...
...
...
...


প্রধান সমন্বয়কারী ও সম্পাদক: রুদ্র সাইফুল
যোগাযোগ: +৮৮০১৭১১০৩১১৫৯

ওয়েবসাইট নির্মাণ ও তত্ত্বাবধায়নে

এহসান আলী, কম্পিউটার কৌশল, বুয়েট